এ রায় রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার নগ্ন প্রকাশ : বিএনপি

এ রায় রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার নগ্ন প্রকাশ : বিএনপি

0
SHARE

সময় সংবাদ রিপোর্ট:২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়কে ‘ফরাময়েশি রায়’ উল্লেখ করে তা প্রত্যাখ্যান করেছে বিএনপি। রায়ের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল আলমগীর বলেছেন, ‘বিএনপি মনে করে এ রায় রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত,ক্ষমতাসীন সরকারের রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার নগ্ন প্রকাশ।’

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ে বুধবার সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর,উপমন্ত্রী আবদুস সালাম পিন্টুসহ ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে এ মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, হারিস চৌধুরী, সাবেক সাংসদ কায়কোবাদসহ ১৯ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়েছে।

এ রায়কে সরকারের ‘প্রতিহিংসামূলক আচরণ’ উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন,   ‘জাতির দুর্ভাগ্য, এই সরকার তার প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার জন্য আদালতকে ব্যবহার করে আরেকটি মন্দ দৃষ্টান্ত স্থাপন করল। যেমনটি করেছে মিথ্যা মামলায় দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাদণ্ড দিয়ে’।

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার পর তৎকালীন বিএনপি সরকারের নেওয়া পদক্ষেপ তুলে ধরে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘দেশবাসী জানেন, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার নৃশংস ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে তৎকালীন বিএনপি সরকারই সেই সময় প্রকৃত অপরাধীদের শাস্তি দেওয়ার জন্য মামলা দায়ের করেছে। স্থানীয় তদন্ত সংস্থাগুলোর পাশাপাশি এফবিআই-ইন্টারপোলকে সম্পৃক্ত করেছে। বিএনপি সরকারই এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রকৃত অপরাধীদের চিহ্নিত করার জন্য বিচার বিভাগীয় তদন্তের ব্যবস্থা করেছে।’

তৎকালীন সরকার ও এক এগারোর সময় করা তদন্ত রিপোর্টে কোথাও বিএনপি ও তারেক রহমানের নাম ছিল না উল্লেখ করে ফখরুল বলেন, ‘এসব তদন্ত বা আওয়ামী লীগের আন্দোলনের ফসল এক এগারোর আমলে করা তদন্তের প্রতিবেদনে কোথাও তারেক রহমান ও বিএনপি নেতাদের সম্পৃক্ত করা হয়নি। এমনকি এ সময় ১৬১ ধারা অনুযায়ী তদন্তকারী কর্মকর্তাদের কাছে দেওয়া জবানবন্দীতে কারারুদ্ধ শেখ হাসিনা তারেক রহমান কিংবা বিএনপির বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ করেননি। ৬২ জন সাক্ষী কেউই তারেক রহমান কিংবা বিএনপির নাম উচ্চারণ করেননি’।

LEAVE A REPLY