চতুর্থ ধাপে ১০৭ উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে

চতুর্থ ধাপে ১০৭ উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে

0
SHARE

ডেইলি নিউজ রিপোর্ট॥ চতুর্থ ধাপে দেশের ২২ জেলার ১০৭ উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে। রোববার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত টানা ভোটগ্রহণ চলবে। সহিংসতার আশঙ্কায় এ ধাপে ৪৯ উপজেলায় অতিরিক্ত বিজিবি ও র‌্যাব সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। অন্যান্য নির্বাচনী এলাকায় রয়েছে পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাব এবং আনসার সদস্যদের মোবাইল ও স্ট্রাইকিং ফোর্স।
ভোটগ্রহণ উপলক্ষে নির্বাচনী এলাকাগুলোতে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। প্রভাব বিস্তারের অভিযোগে তিন এমপিকে নির্বাচনী এলাকা ত্যাগ করতে বলা হয়েছে।
এ ধাপে ৮৮ চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।
সব পদে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় ভোট হচ্ছে না ১৫ উপজেলায়। এ ধাপের মধ্য দিয়ে আপাতত চার ধাপের ভোটগ্রহণ শেষ হচ্ছে। পঞ্চম ধাপের উপজেলা নির্বাচন রোজার ঈদের পর অনুষ্ঠিত হবে। ইসি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
এদিকে শনিবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ, টাঙ্গাইলের ঘাটাইল ও বরগুনার আমতলীতে প্রতিপক্ষের ওপর হামলা এবং নির্বাচনী অফিস ভাঙচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ছাড়া কুমিল্লার তিতাসের ওসিকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।
জানা গেছে, নির্বাচনী উপজেলাগুলোতে শনিবার কেন্দ্রে কেন্দ্রে নির্বাচনী মালামাল পাঠানো হয়েছে।
ইসির কর্মকর্তারা জানান, চতুর্থ ধাপের নির্বাচনে প্রভাব বিস্তার ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে ইসিতে বেশ কিছু অভিযোগ এসেছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে এ ধাপে অন্তত ১০ এমপিকে নির্বাচনী এলাকা ছাড়তে বলা হয়েছে।
সর্বশেষ শনিবার তিনজন ও এর আগে সাতজনকে এ সংক্রান্ত চিঠি দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নিরপেক্ষ ও কঠোর অবস্থানে থাকার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।
৪৯ উপজেলায় বাড়তি সতর্কতা হিসেবে ৪৮টিতে ১১১ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন ও ৪৮ প্লাটুন রিজার্ভ এবং একটি উপজেলায় র‌্যাবের ৪টি টিম মোতায়েন ও একটি টিম রিজার্ভ অবস্থায় রাখা হয়েছে।
ইসি সূত্রে জানা গেছে, চতুর্থ ধাপে ১২২ উপজেলায় ভোটের তফসিল ঘোষণা করেছিল ইসি। এর মধ্যে আদালতের আদেশে চারটি ও ইসি দুটিসহ ৬টি উপজেলার ভোট স্থগিত করা হয়েছে।
অন্যদিকে তৃতীয় ধাপের ছয় উপজেলা স্থানান্তর করে এ ধাপে ভোটগ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। আর ১৫টি উপজেলার সবাই বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হওয়ায় সেখানে ভোটের প্রয়োজন হচ্ছে না। সব মিলিয়ে এ ধাপে ১০৭ উপজেলায় ভোটগ্রহণ হচ্ছে। পটুয়াখালী সদর, কক্সবাজার সদর, বাগেরহাট সদর, ময়মনসিংহ সদর, মুন্সীগঞ্জ সদর ও ফেনী সদর- এ ছয়টি উপজেলায় ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।
আরও জানা গেছে, চতুর্থ ধাপের ১০৭ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৩৫১, ভাইস চেয়ারম্যান ৫৩৩ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪০৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এসব উপজেলায় ভোটকেন্দ্র ৯ হাজার ৭৪০টি ও ভোটকক্ষ ৬৩ হাজার ৬৯৬টি। ভোটার রয়েছেন ২ কোটি ৫৫ লাখ ৪০ হাজার ৭০৪ জন।
আদালতের আদেশে যে চারটি উপজেলা নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে সেগুলো হচ্ছে- খুলনার ডুমুরিয়া, ফেনীর ছাগলনাইয়া, ময়মনসিংহের ত্রিশাল ও কুমিল্লার বরুড়া। আর ইসি বন্ধ করেছে পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া ও নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলা নির্বাচন।

LEAVE A REPLY